শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭

রাজনীতি

বিমানবন্দর থেকে বাসার পথে খালেদা জিয়া

বিমানবন্দর থেকে বাসার পথে খালেদা জিয়া

চিকিৎসার জন্য তিন মাস লন্ডনে অবস্থান শেষে বুধবার বিকালে দেশে ফিরলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে অ্যামিরেটস এয়ারলাইন্সের ইকে ৫৮৬ ফ্লাইটে তিনি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। এসময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ সিনিয়র নেতারা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

বিমানবন্দনে আনুষ্ঠানিকতা শেষে তিনি ৫টা ৪৫ মিনিটে যখন সড়কে বের হন তখন হাজার হাজার নেতাকর্মী তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর করে তোলে পরিবেশ। মানুষের প্রচণ্ড ভীড়ের কারণে ধীরে ধীরে তার গাড়ি গুলশানের বাসার দিকে এগিয়ে যায়।

ইসির সঙ্গে বিএনপির সংলাপ : নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার, সংসদ বিলুপ্তসহ ২০ দফা প্রস্তাব

ইসির সঙ্গে বিএনপির সংলাপ : নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার, সংসদ বিলুপ্তসহ ২০ দফা প্রস্তাব

আজ রবিবার বিএনপি ইসির সাথে সংলাপে বসেছে। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীন আগামী নির্বাচন, ভোটের আগে সংসদ ভেঙ্গে দেয়াসহ ২০ দফা প্রস্তাব করেছে বিএনপি। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে ১৬ সদস্যর একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনের আয়োজিত সংলাপে অংশ নিয়ে এই প্রস্তাব দেয়।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে রবিবার সকাল ১১টা থেকে দুইটা পর্যন্ত তিনঘন্টা এই সংলাপ চলে। এ সময়ে চারজন নির্বাচন কমিশনার ছাড়া ইসি সচিবসহ উধ্বর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগের আহ্বান হাছান মাহমুদের

প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগের আহ্বান হাছান মাহমুদের

শপথ ভঙ্গ, সংবিধান লঙ্গন ও রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্তরে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিতে আয়োজিত এক  মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধান বিচারপতি তার আসনকে কলংকিত করেছেন মন্তব্য করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার কারণে উপজাতীয় ও সংখ্যালঘু থেকে প্রথম প্রধান বিচারপতি হয়েছেন এস কে সিনহা।

আদালতের হাত এত লম্বা নয় যে, সংসদে হাত দিতে পারে: নাসিম

আদালতের হাত এত লম্বা নয় যে, সংসদে হাত দিতে পারে: নাসিম

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আদালতের হাত এত লম্বা নয় যে তারা সংসদে হাত দিতে পারে। এই সংসদ থেকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করা হয়, আর রাষ্ট্রপতি বিচারপতি নির্বাচন করে থাকেন। তাই সংসদ নিয়ে ধৃষ্ঠতা দেখানোর অধিকার কারো নেই।

গতকাল বুধবার বিকালে রাজধানীর বিএমএ মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিএমএ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি জাতীয় সংসদের  সাবেক স্পিকার রাজ্জাক আলীর উদ্ধৃতি দিয়ে এ কথা বলেন। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ২১ বছরে অনেক সরকার ক্ষমতায় এসেছে। তারা কেউ সাহস পায়নি একাত্তরের ঘাতকদের বিচার করতে, যারা লুণ্ঠন করেছে তাদের গায়ে হাত দিতে। কোন বিচারপতিও কালো আইনের বিরুদ্ধে কথা বলেনি। তখন কোথায় ছিলেন তারা?

মামলায় সাজা আতঙ্কে বিএনপির শীর্ষ নেতারা

মামলায় সাজা আতঙ্কে বিএনপির শীর্ষ নেতারা

বিএনপির ছোট-বড় প্রায় সব নেতার বিরুদ্ধেই বিচারাধীন রয়েছে অসংখ্য মামলা। অনেক মামলা স্থানান্তর করা হয়েছে বিশেষ আদালতে। রায়ের অপেক্ষায় আছে কোনো কোনো মামলা। বর্তমানে সাজা আতঙ্কে ভুগছে দলটির শতাধিক নেতা। তার মধ্যে স্থায়ী কমিটির ১২ জন সদস্যের মামলা রায় ঘোষণার পর্যায়ে রয়েছে। এনিয়ে দলের হাইকমান্ড আছেন দুশ্চিন্তায়।

বিএনপির আইনজীবীরা জানান, দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ আড়াই শতাধিক কেন্দ্রীয় নেতার বিরুদ্ধেই চলছে পাঁচ হাজারের বেশি মামলা। সারা দেশে বিএনপির প্রায় ৫ লাখ নেতাকর্মী মামলার আসামি। নিশ্চিত সাজা হতে পারে এমন কিছু ধারায় এ সব মামলা করা হয়েছে। হত্যা, বিস্ফোরণ, ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ ও পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে দ্রুত বিচার আইনের পাশাপাশি মামলা হয়েছে রাষ্ট্রদ্রোহ  এবং তথ্য-প্রযুক্তি আইনে। রয়েছে দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের মামলাও। আদালতে চার্জ গঠন হচ্ছে একের পর এক মামলার।

বিএনপি চেয়ারপারসনসহ নেতারা অভিযোগ করছেন, সাজা দেয়ার জন্যই তড়িঘড়ি করে মামলা শেষ করা হচ্ছে। নেতাদের নির্বাচনে অযোগ্য করে সরকার সংসদ নির্বাচন করতে চাচ্ছে।

আইনজীবীরা জানান, খালেদা জিয়ার দুটি মামলার বিচার কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। খালেদা জিয়ার ঘন ঘন আদালতের হাজিরার দিন ধার্য হওয়ায় চিন্তিত দলের নেতাকর্মীরা। প্রতি সপ্তাহেই তাকে আদালতের দ্বারস্থ হতে হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে রয়েছে ৩৫টি মামলা। এর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ও অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বিচার প্রক্রিয়া প্রায় শেষপর্যায়ে। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষেই যুক্তিতর্ক। এরপর যে কোনো দিন রায়। নাইকো, গ্যাটকোসহ আরও কয়েকটি মামলার বিচার কার্যক্রমও চলছে পুরোদমে। জিয়া চ্যারিটেবল ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় নিম্ন আদালতে সাজা হলে আইনি লড়াইয়ে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন খালেদা জিয়া।

পরীক্ষাকেন্দ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা নয়, মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা চাই: কাদের

পরীক্ষাকেন্দ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা নয়, মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা চাই: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পরীক্ষাকেন্দ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা নয়, মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা চাই। রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা যানজট পরিস্থিতির উত্তরণে শিক্ষার্থীদের ভলান্টিয়ার হিসেবে দেখতে চান তিনি। 

মঙ্গলবার বিকালে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কৃতী শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও ক্যামব্রিয়ান অ্যাডুকেশন গ্রুপের কলেজগুলোর নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের ভলান্টিয়ার কাজে লাগানো গেলে মনে হয় কিছুটা স্বস্তি খুঁজে পাব।

পাকিস্তানপন্থী রাজনীতির পথ পরিষ্কার করতেই কর্নেল তাহের হত্যা : হাসানুল হক ইনু

পাকিস্তানপন্থী রাজনীতির পথ পরিষ্কার করতেই কর্নেল তাহের হত্যা : হাসানুল হক ইনু

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, জিয়া তার পাকিস্তানপন্থী রাজনীতির পথ পরিষ্কার করতেই ঠাণ্ডা মাথায় কর্নেল তাহেরকে হত্যা করে। কর্নেল তাহের হত্যাকাণ্ড একটি রাজনৈতিক।

তিনি বলেন, জিয়া আর কর্নেল তাহের এর মধ্যে রাজনৈতিক বিরোধ ছিল। জিয়া বাংলাদেশকে পাকিস্তানি ধারায় ঠেলে দিতে চেয়েছিল। তাহের বাংলাদেশকে পাকিস্তানি ধারায় ঠেলে দেয়ার বিপরীতে বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় পরিচালিত করার জন্য ৭৫ এর ৭ নভেম্বর সিপাহী জনতার অভ্যত্থান সংগঠিত করেছিলেন।

হাসানুল হক ইনু শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে তাহের দিবস উপলক্ষে জাসদ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনার অধীনেই সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে :নাসিম

শেখ হাসিনার অধীনেই সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে :নাসিম

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম শেখ হাসিনাকে সরিয়ে নির্বাচনের দাবিকে মামা বাড়ির আবদার হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। এক্ষেত্রে কোনো আন্দোলনে কাজ হবে না, কারো অযৌক্তিক আবদার মানা হবে না। গতকাল রবিবার বিকালে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক হোটেল সোনারগাঁওয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত ‘জরুরি প্রসূতিসেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় পুরস্কার প্রদান’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।